বিভিন্ন বিষয়ে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রেরনাদায়ক বাণী | Quotes in Bengali

rabindranath tagore quotes in bengali

rabindranath tagore quotes in bengali

কেন রবীন্দ্রনাথ বাঙালীর আবেগ ?

বাংলা সাহিত্যের এমন কোনো জায়গা নেই যে সেখানে রবি ঠাকুরের অবদান নেই । ২৫শে বৈশাখ, বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৫৯ তম জন্মবার্ষিকী । প্রাণের আবেগ এবং ভালোবাসার মধ্য দিয়ে যথাযোগ্য মর্যাদায় বাঙালী জাতি পালন করবে রবীন্দ্র জয়ন্তী । পৃথিবীর ইতিহাসে এক অনন্য উজ্জ্বল অসাধারণ প্রতিভাধর ব্যক্তিত্ব রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, তার সবচাইতে বড়ো পরিচয়- তিনি বাংলা ভাষার সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ সাহিত্যিক। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের   কবিতা, গল্প, উপন্যাস, নাটক, সঙ্গীত, প্রবন্ধ, চিঠিপত্র,চিত্রকলা- সাহিত্যের এমন কোনো শাখা নেই যেখানে রবি ঠাকুর বিচরণ করেন নি। মানুষের এমন কোনো মানবিক অনুভূতি নেই, যা রবীন্দ্রনাথের কাছে পাওয়া যায়না- প্রেম, বিরহ, সুখ-দুঃখ, আবেগ-ভালোবাসা সব জায়গাতেই রবীন্দ্রনাথ যেনো অমলিন। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের বানী আমাদেরকে প্রেরনা দেয়। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বাংলা সাহিত্যকে বিশ্ব দরবারে, বিশ্বের মানুষের কাছে সফলভাবে প্রতিষ্ঠিত করেছেন, তাই যুগের পর যুগ বাঙালির চিন্তায় ও মননে নিবিড়ভাবে মিশে আছেন বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বা গুরুদেব রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর । rabindranath tagore shayari bengali

একজীবনে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর মানুষকে যা দিয়ে গিয়েছেন, আজীবন তিনি বাঙালিকে করেছেন পরিপূর্ণ। আজ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর না থাকলে বাংলা সাহিত্য যেমন অন্ধকারাচ্ছন্ন হয়ে থাকতো, তেমনি মানুষ সাহিত্য পাঠ থেকে বঞ্চিত হতো। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর শুধুমাত্র কবিই ছিলেন না, তিনি একজন মহান মানবতাবাদী দার্শনিক; তিনিই আমাদেরকে উপলব্ধি করতে শিখিয়েছেন যে- সাহিত্য, ইতিহাস, সংষ্কৃতি মানবতাবাদেরই এক অভিন্ন প্রতীক। আজ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর নেই, কিন্তু রবি ঠাকুরের সৃজনশীলতা, দর্শন, মানবতাবাদ যুগ যুগ ধরে বাঙালি জাতিকে অনুপ্রাণিত করছে।

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর মানেই বাঙালি বুঝে

  1. রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কবিতা
  2. রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ছোট কবিতা
  3. রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রেমের কবিতা
  4. রবি ঠাকুরের ছোটদের কবিতা
  5. রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ছড়া
  6. রবি ঠাকুরের জন্মদিনের কবিতা
  7. রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের গান
  8. রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের নাটক
  9. রবীন্দ্রনাথের বাণী
  10. রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের উক্তি
  11. প্রকৃতি নিয়ে রবীন্দ্রনাথের উক্তি

rabindranath tagore whatsapp status in bengali

[siteorigin_widget class=”ai_widget”][/siteorigin_widget]

২৫ শে বৈশাখ রবীন্দ্রনাথের বাণী

আজ আমি আপানাদেরকে rabindranath tagore 25 boishakh ২৫ শে বৈশাখ  রবীন্দ্র জয়ন্তী উপলক্ষে  রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের উক্তি প্রস্তুত করছি। আশা করি ভালো লাগবে। কমেন্টে অবশ্যই জানাবেন।

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের উপন্যাসের উক্তি

প্রকৃতি নিয়ে রবীন্দ্রনাথের উক্তি

রবীন্দ্রনাথের উক্তি

 

সংসারে সেরা লোকেরাই কুড়ে এবং বেকার লোকেরাই ধন্য। উভয়রে সম্মিলন হলেই মণি কাঞ্চন যোগ। এই কুঁড়ে বেকারে মিলনের জন্যইতো সন্ধ্যেবেলাটার সৃষ্টি হয়েছে।যোগীদরে জন্য সকালবেলা রোগীদের জন্য রাত্রি কাজের লোকদের জন্য দশটা-চারটে

সময়ের সমুদ্রে আছি,কিন্তু একমুহূর্ত সময় নেই

ধর্ম নিয়ে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের উক্তি  ‘ধর্মের বেশে মোহ যারে এসে ধরে অন্ধ সে জন মারে আর শুধু মরে’।

রাশিয়ার চিঠি’ প্রবন্ধে রবীন্দ্রনাথ বলছেন ‘ যার সঙ্গে মানুষের লোভের সম্বন্ধ তার কাছ থেকে মানুষ প্রয়োজন উদ্ধার করে, কিন্তু কখনো তাকে সম্মান করে না ।’

সাহেব সাজা বাঙালিদের প্রতি পদে ভয়, পাছে তারা বাঙালি বলে ধরা পড়েন

যৌবনের শেষে শুভ্র শৎরকালের ন্যায় একটি গভীর প্রশান্ত প্রগাঢ় সুন্দর বয়স আসে যখন জীবনের শেষে ফল ফলিবার এবং শস্য পাকিবার সময়

সংসারের কোন কাজেই যে হতভাগ্যের বুদ্ধি খেলে না, সে নিশ্চয়ই ভাল বই লিখিবে

যে খ্যাতির সম্বল অল্প তার সমারোহ যতই বেশি হয়, ততই তার দেউলে হওয়া দ্রুত ঘটে

পথের সঞ্চয়। লক্ষ্য ও শিক্ষাতে রবীন্দ্রনাথ বলেছিলেন- শিক্ষা কোনো দেশেই সম্পূর্ণত ইস্কুল হইতে হয় না এবং আমাদের দেশেও হইতেছে না। পরিপাকশক্তি ময়রার দোকানে তৈরি হয় না, খাদ্যেই তৈরি হয়।

ছিন্নপত্রাবলী: পত্র ১৩৮তে রবীন্দ্রনাথ বলেছিলেন- পৃথিবীর উপকার করার ইচ্ছা থাকলেও কৃতকার্য হওয়া যায় না, কিন্তু তার বদলে যেটা করতে পারি সেইটে করে ফেললে অনেক সময় আপনি পৃথিবীর উপকার হয়, নিদেন একটা কাজ সম্পন্ন হয়ে যায়।

সমালোচনা। একটি পুরাতন কথাতে রবীন্দ্রনাথ বলেছিলেন- কলস যত বড়ই হউক না, সামান্য ফুটা হইলেই তাহার দ্বারা আর কোনো কাজ পাওয়া যায় না। তখন যাহা তোমাকে ভাসাইয়া রাখে তাহাই তোমাকে ডুবায়।

রাশিয়ার চিঠিতে রবীন্দ্রনাথ বলেছিলেন-   ছাড়ব না, কিন্তু কোন দিক বাগে হাল চালাতে হবে সেটা যদি না ভাবি ও বুদ্ধিসংগত তার একটা জবাব না দিই তবে, মুখে যতই আস্ফালন করি, ভাষান্তরে তাকেই বলে হাল ছেড়ে দেওয়া।

[siteorigin_widget class=”WP_Widget_Custom_HTML”][/siteorigin_widget]

বিয়ে নিয়ে রবীন্দ্রনাথের উক্তি

rabindranath tagore quotes on marriage in bengali

rabindranath tagore quotes on marriage in bengali

বিবাহ নিয়ে রবীন্দ্রনাথের উক্তি দিতে তিনি বলেছেন- 

মানুষের একটা বয়স আছে যখন সে চিন্তা না করিয়াও বিবাহ করিতে পারে। সে বয়স পেরোলে বিবাহ করিতে দুঃসাহসিকতার দরকার হয়

মেয়েটির বিবাহের বয়স পার হইয়া গেছে , কিন্তু আর কিছুদিন গেলে সেটাকে ভদ্র বা অভদ্র কোনো রকমে চাপা দিবার সময়টাও পার হইয়া যাইবে । মেয়ের বয়স অবৈধ রকমে বাড়িয়া গেছে বটে , কিন্তু পণের টাকার আপেক্ষিক গুরুত্ব এখনো তাহার চেয়ে কিঞ্চিৎ উপরে আছে , সেইজন্যই তাড়া

লোকে ভুলে যায় দাম্পত্যটা একটা আর্ট, প্রতিদিন ওকে নতুন করে সৃষ্টি করা চাই

স্ত্রীর সঙ্গে বীরত্ব করে লাভ কি? আঘাত করলেও কষ্ট, আঘাত পেলেও কষ্ট।

ভালোবাসা কথাটা বিবাহ কথার চেয়ে আরো বেশি জ্যান্ত

নরমাংসের স্বাদ পাইলে মানুষের সম্বন্ধে বাঘের যে দশা হয়, স্ত্রীর সম্বন্ধে তাহার ভাবটা সেইরূপ হইয়া উঠে

মানুষের একটা বয়স আছে যখন সে চিন্তা না করিয়াও বিবাহ করিতে পারে। সে বয়স পেরোলে বিবাহ করিতে দুঃসাহসিকতার দরকার হয়

[siteorigin_widget class=”WP_Widget_Custom_HTML”][/siteorigin_widget]

শিক্ষা সম্পর্কে রবীন্দ্রনাথের উক্তি

rabindranath tagore quotes bengali

Educational quotes of rabindranath tagore in bengali

আরো পড়ুন – রবি ঠাকুরের ছোটদের মজার কবিতা এবং ছড়া | আবৃত্তি

“ মনুষ্যত্বের শিক্ষাটাই চরম শিক্ষা আর সমস্তই তার অধীন ”

জীবনস্মৃতি। পিতৃদেবতে বলেছেন-  শিক্ষার সকলের চেয়ে বড়ো অঙ্গটা—বুঝাইয়া দেওয়া নহে, মনের মধ্যে ঘা দেওয়া।

শিক্ষা। শিক্ষার বাহনতে বলেছেন- মুখস্থ করিয়া পাস করাই তো চৌর্যবৃত্তি! যে ছেলে পরীক্ষাশালায় গোপনে বই লইয়া যায় তাকে খেদাইয়া দেওয়া হয়; আর যে ছেলে তার চেয়েও লুকাইয়া লয়, অর্থাৎ চাদরের মধ্যে না লইয়া মগজের মধ্যে লইয়া যায়, সেই-বা কম কী করিল?

পথের সঞ্জয়। শিক্ষাবিধিতে বলেছেন-  যে শিক্ষা স্বজাতির নানা লোকের নানা চেষ্টার দ্বারা নানা ভাবে চালিত হইতেছে তাহাকেই জাতীয় বলিতে পারি। স্বজাতীয়ের শাসনেই হউক আর বিজাতীয়ের শাসনে হউক, যখন কোনো একটা বিশেষ শিক্ষাবিধি সমস্ত দেশকে একটা কোনো ধ্রুব আদর্শে বাঁধিয়া ফেলিতে চায় তখন তাহা জাতীয় বলিতে পারি না—তাহা সাম্প্রদায়িক, অতএব জাতির পক্ষে তাহা সাংঘাতিক।

শিক্ষা। শিক্ষার হেরফের বলেছেন – অত্যাবশ্যক শিক্ষার সহিত স্বাধীন পাঠ না মিশাইলে ছেলে ভালো করিয়া মানুষ হইতে পারে না—বয়ঃপ্রাপ্ত হইলেও বুদ্ধিবৃত্তি সম্বন্ধে সে অনেকটা পরিমাণে বালক থাকিয়াই যায়।

পথের সঞ্চয়। শিক্ষাবিধিতে বলেছেন-  শিশুবয়সে নির্জীব শিক্ষার মতো ভয়ংকর ভার আর কিছুই নাই; তাহা মনকে যতটা দেয় তাহার চেয়ে পিষিয়া বাহির করে অনেক বেশি।

ছিন্নপত্রাবলী: পত্র ৮০তে বলেছেন-  কেউ কেউ যেমন প্রথম শ্রেণীতে পাস করে, কেউ কেউ তেমনি প্রথম শ্রেণীতে ফেল করে। কিন্তু যারা পাস করে তাদেরই ভিন্ন ভিন্ন শ্রেণী নির্দিষ্ট হয়, যারা ফেল করে তাদের মধ্যে শ্রেণীনির্দেশ করা কেউ আবশ্যক মনে করে না।

নিচের দুটি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের লেখা নয় – 

এদেশের শিক্ষাকে রাজনীতি মুক্ত করা না গেলেও রাজনীতিকে শিক্ষা মুক্ত করা গিয়েছে।

মায়ের শিক্ষাই শিশুর ভবিষ্যতের বুনিয়াদ, মা-ই হচ্ছেন শিশুর সর্বোৎকৃষ্ট বিদ্যাপীঠ ।

[siteorigin_widget class=”WP_Widget_Custom_HTML”][/siteorigin_widget]

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রেমের উক্তি

আরো রবি ঠাকুরের লেখা ৩০০ প্রেমের কবিতা পড়তে নিচের লিঙ্কে কিল্ক করুন।

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রেমের কবিতা সমগ্র | Tagore poems love Bengali 

রবীন্দ্রনাথের বিখ্যাত অনন্ত প্রেম  কবিতা এবং ভাব সারমর্ম 

rabindranath tagore quotes in bengali

rabindranath tagore quotes in bengali

Rabindranath tagore love quotes

প্রেমের মধ্যে ভয় না থাকলে রস নিবিড় হয় না

ক্ষমাই যদি করতে না পারো, তবে তাকে ভালোবাসো কেন?

আনন্দকে ভাগ করলে দুটি জিনিস পাওয়া যায়; একটি হচ্ছে জ্ঞান এবং অপরটি হচ্ছে প্রেম

স্বামীরা প্রেমিক হতে অবশ্যই রাজি, তবে সেটা নিজের স্ত্রীর সাথে নয়। নিজের স্ত্রীর প্রেমিক হবার বিষয়টা কেন যেন তারা ভাবতেই চায় না

আমার তৃষ্ণা তোমার সুধা তোমার তৃপ্তি আমার সুধা

বিয়ে করলে মানুষকে মেনে নিতে হয় , তখন আর গড়ে নেবার ফাঁক থাকে না

ভালোবাসা কথাটা বিবাহ কথার চেয়ে আরো বেশি জ্যান্ত

পৃথিবীর সবচেয়ে বড় দূরত্ব কোনটি জানো ? নাহ্ জীবন থেকে মৃত্যু পর্যন্ত , উত্তরটা সঠিক নয় । সবচেয়ে বড় দূরত্ব হলো যখন আমি তোমার সামনে থাকি , কিন্তু তুমি জানো না যে আমি তোমাকে কতটা ভালবাসি

বিচ্ছেদের মুখে প্রেমের বেগ বাড়িয়া ওঠে

পৃথিবীতে বালিকার প্রথম প্রেমেরমত সর্বগ্রাসী প্রেম আর কিছুই নাই। প্রথমযৌবনে বালিকা যাকে ভালোবাসে তাহার মত সৌভাগ্যবানও আর কেহই নাই। যদিও সে প্রেম অধিকাংশ সময় অপ্রকাশিত থেকে যায়, কিন্তু সে প্রেমের আগুন সব বালিকাকে সারাজীবন পোড়ায়।

[siteorigin_widget class=”WP_Widget_Custom_HTML”][/siteorigin_widget]

প্রকৃতি নিয়ে রবীন্দ্রনাথের উক্তি

প্রকৃতি নিয়ে রবীন্দ্রনাথের উক্তি

প্রকৃতি নিয়ে রবীন্দ্রনাথের উক্তি

Rabindranath tagore quotes on nature

‘সভ্যতার প্রতি’ কবিতায় কবি উদাত্তভাবে শহুরে জীবন ত্যাগ করতে আহ্বান জানান :

দাও ফিরে সে অরণ্য , লও এ নগর।

লও যত লৌহ লোষ্ট্র কাষ্ঠ ও প্রস্তর

মরু বিজয়ের কেতন উড়াও শূন্যে হে প্রবল প্রাণ

ধুলিরে ধন্য করো করুণার পুণ্যে হে কোমল প্রাণ’

অরণ্য দেবতা’ নামক প্রসিদ্ধ প্রবন্ধে তিনি উল্লেখ করেছেন, কিভাবে প্রকৃতির সঙ্গে মানুষের সম্পর্ক নষ্ট হলো। তিনি বলেন যে মানুষের সর্বগ্রাসী লোভের হাত থেকে অরণ্য সম্পদ রক্ষা করাই সর্বত্র সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। বিধাতা পাঠিয়েছিলেন প্রাণকে, চারদিক তারই আয়োজন করে রেখেছিলেন। মানুষই নিজের লোভের দ্বারা মরণের উপকরণ যুগিয়েছে। বিধাতার অভিপ্রায় লঙ্ঘন করেই মানুষের সমাজ আজ এত অভিসম্পাত রবীন্দ্রনাথ ‘তপোবন’ প্রবন্ধে বেদনার সঙ্গে বলেন, একসময় এই ভূখ-ে মানুষ আর গাছপালা একে অপরের সঙ্গে জড়াজড়ি করে থাকতো তা ধীরে ধীরে হারিয়ে গেছে।

আমি যেভাবে প্রকৃতিকে এঁকেছি তা তার বাইরের রূপ মাত্র। এখন বাকি ভাবনাটা আপনাদের ওপর- প্রকৃতির যে কি করুণ আর বিপর্যস্ত অবস্থা!

বাণীশূন্য ছিল একদিন

জলস্থল শূন্যতল, ঋতুর উৎসবমন্ত্রহীন

শাখায় রচিলে তব সংগীতের আদিম আশ্রয়,

কবি ছুটে যান বৃক্ষের তলদেশে কারণ বৃক্ষ শান্তির বাণী ধরে রাখে যুগ যুগ ধরে :

তাই আসি তোমার আশ্রয়ে শান্তিদীক্ষা লভিবারে,

শুনিতে মৌনের মহাবাণী;বৃক্ষবন্দনা’

‘নমো যন্ত্র, নমো যন্ত্র, নমো যন্ত্র, নমো যন্ত্র

মুক্তধারায় কবিগুরু রবীন্দ্রনাথের উক্তি –

তুমি চক্রমুখরমন্দ্রিত,

তুমি বজ্রবহ্নিবন্দিত,

তব বস্তুবিশ্ববক্ষোদংশ

ধ্বংসবিকট দন্ত।’

প্রশ্ন কবিতায় রবি ঠাকুর বলেছেন –

যাহারা তোমার বিষাইছে বায়ু, নিভাইছে তব আলো,

তুমি কি তাদের ক্ষমা করিয়াছো, তুমি কি বেসেছ ভালো?’

[siteorigin_widget class=”WP_Widget_Custom_HTML”][/siteorigin_widget]

কিছু প্রেরনাদায়ক রবীন্দ্রনাথের বাণী

কিছু প্রেরনাদায়ক রবীন্দ্রনাথের বাণী

কিছু প্রেরনাদায়ক রবীন্দ্রনাথের বাণী

“যে ধর্মের নামে বিদ্বেষ সঞ্চিত করে, ঈশ্বরের অর্ঘ্য হতে সে হয় বঞ্চিত। ”

 

“সাত কোটি বাঙালিরে হে মুগ্ধ জননী রেখেছ বাঙালি করে মানুষ করনি”

 

“কত বড়ো আমি কহে নকল হীরাটি। তাই তো সন্দেহ করি নহ ঠিক খাঁটি”

 

“নদীর এপার কহে ছাড়িয়া নিশ্বাস, ওপারেতে সর্বসুখ আমার বিশ্বাস। নদীর ওপার বসি দীর্ঘশ্বাস ছাড়ে; কহে, যাহা কিছু সুখ সকলি ওপারে।”

 

“অন্যায় যে করে আর অন্যায় যে সহে তব ঘৃণা তারে যেন তৃণসম দহে।’

 

“যারে তুমি নীচে ফেল সে তোমারে বাঁধিবে যে নীচে, পশ্চাতে রেখেছ যারে সে তোমারে পশ্চাতে টানিছে।”

 

“সোহাগের সঙ্গে রাগ না মিশিলে ভালবাসার স্বাদ থাকেনা – তরকারীতে লঙ্কামরিচের মত”

 

“যদি তোর ডাক শুনে কেউ না আসে, তবে একলা চলো রে”

 

“আনন্দকে ভাগ করলে দুটি জিনিস পাওয়া যায়, একটি হচ্ছে জ্ঞান ও অপরটি হচ্ছে প্রেম।”

 

“মন দিয়ে মন বোঝা যায় ,”

 

“গভীর বিশ্বাস শুধু ,

নীরব প্রেমের কথা টেনে নিয়ে আসে।

 

“আগুনকে যে ভয় পাই,

সে আগুনকে ব্যবহার করতে পারে না”

 

“গোলাপ যেমন একটি বিশেষ জাতের ফুল ,

বন্ধু তেমনই একটি বিশেষ জাতের মানুষ”

 

“এরা সুখের লাগি ,চাহে প্রেম,

প্রেম মেলে না,

শুধু সুখ চলে যায়”

 

চোখ নিয়ে রবীন্দ্রনাথের উক্তি

“চোখ কতটুকুই দেখে,

কান কতটুকুই  শোনে,

স্পর্শ কতটুকুই বোধ করে।

কিন্তু মন এই আপন ক্ষুদ্রতাকে,

কেবলই ছড়িয়ে যাচ্ছে।”

 

“পাপকে ঠেকাবার জন্য কিছু না করাই তো পাপ।”

 

“যে পুরুষ অসংশয়ে অকুণ্ঠিতভাবে,

নিজেকে প্রচার করিতে পারে।

সেই সমস্ত পুরুষ সহজেই ,

নারীর দৃষ্টি আকর্ষণ করিতে পারে।”

 

“আমরা বন্ধুর কাছ থেকে মমতা চাই,

সমবেদনা চাই, সাহায্যও চাই,

সেই জন্যই বন্ধুকে চাই।”

 

“সাধারণত স্ত্রী জাতি কাঁচা আমি,ঝাল লঙ্কা এবং কড়া স্বামীই ভালোবাসে।”

 

“যে মরিতে জানে,

সুখের অধিকার তাহারই

যে জয় করতে জানে,

ভোগ করা তারই সাজে।”

 

“মানুষের উপর বিশ্বাস হারানো পাপ।”

 

“অতীতকাল যত বড়ো কালই হোক

নিজের সম্বন্ধে বর্তমান কালের একটা স্পর্ধা থাকা উচিত।”

“মনে থাকা উচিত ,তার মধ্যে জয় করিবার শক্তি আছে”