বাঙালির লজ্জা ভিডিও: স্যার আশুতোষ মুখার্জী পাদদেশে বাংলা মদের বোতল নিয়ে মত্ত মাতাল

আজ যখন বেলেঘাটা সি আই টি রোড ধরে কাঁকুড়গাছি দিকে আসছিলাম। তখন হঠাৎ বেলেঘাটা সি আই টি মরে দেখি যে এক মাতাল বাংলা মদের বোতল নিয়ে স্যার আশুতোষ মুখার্জী অবক্ষয় মূর্তির পাদদেশে মত্ত হয়ে পড়ে আছে। 
নিচের ভিডিও লিংকটি দিলাম দেখুন।
আমার কাছে সত্যই এই দৃশ্যটি লজ্জাজনক বলে মনে হয় কি বাংলার যুবক ছেলেরা কোথায় পদদলিত হয়ে গেল স্যার আশুতোষ মুখার্জী একসময় যাকে বাংলার বাঘ বলে বলা হয়, যার কৃতিত্বের জন্য দেশ গৌরব অনুভব করে। যে বাঙালির দেশপ্রেম, শিক্ষাপ্রেম দেখে দেশবাসী গর্ববোধ করে। কিন্তু এই বাংলার বুকে আজ বাংলার যুবকেরা বাংলার গর্ব বোধ করা তো দূর বাংলা মদের বোতল নিয়ে মত্ত হয়ে উনার পাদদেশে মত্ত হয়ে পড়ে আছে। নেই কোন চিন্তা নেই কোন উন্মাদনা বাংলার বাঘ আশুতোষ মুখার্জির মত বাংলা এবং দেশের সম্মান উচ্চ শিখরে পৌঁছানোর চিন্তা। সত্যই আজ বাংলার যুবকদের দেশের প্রতি উন্মাদনা কোথায় চলে গেছে। 
মনে খুব খারাপ লাগল দৃশ্যটি দেখে। দৃশ্যটি আমার হৃদয়ে কম্পন করে তুলেছে। জাগো বাঙালি জাগাও বাংলা । স্বামী বিবেকানন্দের বাংলার যুবকের কাছে যে আহ্বান জানিয়েছিলেন সে আওয়াজ হয়তোবা বাংলার সকল যুবক নিজের মনে প্রানে মেনে নেয়নি। যদি নিত তাহলে হয়তো এমন দৃশ্য চোখে পড়তো না হয়তোবা চোলাই মদ খেয়ে মরলে দু লাখ টাকার কন্সেশন দিতে হতো না। হয়তো সেই দুই লাখ টাকা যুবক সমাজের আধ্যাত্মিক শৈক্ষিক সামাজিক উন্নতির প্রকল্পে ব্যবহার করা হতো। আজ স্যার আশুতোষ মুখোপাধ্যায় এই বাংলার বাঘ আমাদের মধ্যে নেই, কিন্তু তার কথা তার চিরন্তর বানী তার কাজ আমাদের মধ্যে আজও বিরাজ করছে। তিনি সশরীরে না থাকলে তার কাজের মাধ্যমে অদৃশ্য রুপি আত্মারূপে আমাদের মধ্যে আছে।  আজ এই দৃশ্য দেখে আমার মনে ব্যথা অবশ্যই লেগেছে তার থেকেও শত শত গুণ বেশি ব্যাথা হয়তো স্যার আশুতোষ মুখার্জির মনে লেগেছে। আমার কথা গুলি অত্যন্ত আবেগপ্রবণ তাই হয়তো শব্দগত প্রাধান্য তা আমি ভালো করে তুলে ধরতে পারিনি কিন্তু এই ভিডিও দেখে অবশ্যই আপনার মনে ভাষাহীন ভাবে প্রাধান্য পাবে তুলে ধরুন সবার কাছে বাংলা কে বাঁচান বাঙালি কে বাঁচান ভিডিওটি দেখুন সকলের সাথে শেয়ার করুন।

Leave a Comment